Deshprothikhon-adv

ইভেন্স টেক্সটাইলের পরিচালকদের শাস্তির দাবী, ২ বছরের মাথায় নো ডিভিডেন্ড!

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

শেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ইভেন্স টেক্সটাইল কোম্পানির বিনিয়োগকারীদের নি:স্ব করেছে। বিনিয়োগকারীদের টাকায় ব্যবসা করলেও সমাপ্ত অর্থবছর শেষে বিনিয়োগকারীদের কোন লভ্যাংশ দিচ্ছে না। অথচ কোম্পানি ঠিকই ব্যবসা করেছে। তালিকাভুক্ত কোম্পানিটি পরিচালনা পর্ষদ ৩০ জুন ২০১৮ সমাপ্ত বছরে সংশ্লিষ্ট শেয়ারহোল্ডারদের জন্য কোন ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেনি।

ইভেন্স টেক্সটাইল কোম্পানির পরিচালকদের স্বেচ্ছাচারিতায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা। তবে ইভেন্স টেক্সটাইল কোম্পানি লিমিটেডের ঘোষিত ডিভিডেন্ডে বিনিয়োগকারীরা হতাশ হয়েছেন। ঘোষিত ডিভিডেন্ডের পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছে একাধিক বিনিয়োগকারীরা। এদিকে ইভেন টেক্সটাইলের দুর্বল মৌলভিত্তি ও মিথ্যা তথ্য দিয়ে অনুমোদন নিয়ে বিনিয়োগকারী থেকে শুরু করে বাজার-সংশ্লিষ্ট সবার মনেই ছিল নানা প্রশ্ন ও সংশয়।

এ কোম্পানির আইপিও অনুমোদনের সঙ্গে বিএসইসির বিরুদ্ধে ‘অবৈধ আর্থিক লেনদেনের’ অভিযোগ উঠেছে। নানা সুবিধার বিনিময়ে এসব নিম্নমানের কোম্পানিকে বাজারে আসার সুযোগ করে দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা। তবে এসব অভিযোগের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্যপ্রমাণ পাওয়া যায়নি। আবার এসব অভিযোগ যাচাই করার জন্য যে ধরনের নিরপেক্ষ তদন্ত দরকার ছিল, তাও হয়নি।

এ ধরনের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সাইফুর রহমান বলেন, কমিশন নিজস্ব আইন অনুযায়ী কাজ করে থাকে। এতে কেউ খুশি হন, আবার কেউ অখুশি হন। তা থেকে নানা ধরনের অভিযোগ তোলা হয়। যার কোনো সুনির্দিষ্ট তথ্যপ্রমাণ থাকে না। তবে কেউ যদি সুনির্দিষ্ট তথ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে কোনো অভিযোগ করেন, তাহলে কমিশন তা খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে থাকে।

এদিকে গত পাঁচ বছরে বাজারে আসা নতুন কিছু কোম্পানির অনিয়মের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির পক্ষপাতিত্ব ও ধীরে চলো নীতি ছিল দৃশ্যমান। আইপিও বিবরণীপত্র বা প্রসপেক্টাসে মিথ্যা ও ভুল তথ্য দেওয়ার কারণে কোনো কোনো কোম্পানিকে আর্থিক জরিমানা করা হলেও একই অপরাধে কয়েকটি কোম্পানির বেলায় একেবারে নিশ্চুপ ছিল নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

বিনিয়োগকারীরা অভিযোগ করে বলেছেন, ইভেন্স টেক্সটাইলের ঘোষিত ডিভিডেন্ড বিনিয়োগকারীদের সাথে প্রতারনা করেছে। আর যদি প্রতারনা না করে তা হলে নো ডিভিডেন্ডের কারন কি? কোম্পানির পুঁজিবাজারে আসার দু’বছরের মাথায় নো ডিভিডেন্ড ঘোষনা করছে। এ কোম্পানির পরিচালকদের শাস্তির দাবী জানিয়েছেন বিনিয়োগকারীরা ।

ইভেন্স টেক্সটাইল লিমিটেড ৩০ জুন, ২০১৮ সমাপ্ত অর্থবছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য নো ডিভিডেন্ড দেওয়ার ঘোষণা করেছে। আজ অনুষ্ঠিত কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, আলোচিত সময় কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.০৬ টাকা। যা আগের বছর একই সময় ছিল ১.১৬ টাকা। এছাড়া শেয়ার প্রতি সমন্বিত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৪.৪৪ টাকা এবং শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ২.৮৫ টাকা।

কোম্পানির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আগামী ৩০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে। ডিভিডেন্ড সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট ১১ অক্টোবর নির্ধারণ করা হয়েছে। এজিএমের সময় ও স্থান পরে জানানো হবে বলে কোম্পানি পক্ষ থেকে জানানো হয়।

সুত্র: দৈনিক দেশ প্রতিক্ষণ ও দেশ প্রতিক্ষণ ডটকম

Comments are closed.