Deshprothikhon-adv

পুঁজিবাজারের স্বচ্ছ, জবাবদিহিতা গঠনই আমাদের কাম্য: খাইরুল

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

kharul-lagoশেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন বলেছেন, পুঁজিবাজারের বর্তমান গতি ও লেনদেন সামঞ্জস্যপূর্ণ কি-না সেদিকে দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জকে নজর দিতে বললেন তিনি। তবে একটি স্বচ্ছ, জবাবদিহি ও টেকসই পুঁজিবাজার গঠনই আমাদের কাম্য। এর জন্য তিনি সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

তিনি বলেন, আজকের বাজার মূলধন অনুযায়ী, জিডিপির ২১ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে পুঁজিবাজার। এই হার ৫০ শতাংশে উন্নীত করার জন্য সরকার কাজ করে যাচ্ছে। দেশের বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়নে যদি বাজারকে ব্যবহার করা হয়, তবে সেদিন আর দূরে নয়।

আজ সোমবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ৬০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান। রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁও এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, দীর্ঘ মন্দার পর পুঁজিবাজারে গতি ফিরে পেয়েছে। এখানে সূচক ও লেনদেনে কোনো সামঞ্জস্যহীনতা হচ্ছে কি-না তা খতিয়ে দেখতে হবে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ সেদিকে নজর দিতে হবে।

“স্বল্প মুনাফার লোভে কেউ যাতে দায়িত্ব ভুলে না যায়- সেটাও খেয়াল রাখতে হবে।” ডিএসই চেয়ারম্যান বিচারপতি ছিদ্দিকুর রহমান মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কে.এ.এম মাজেদুর রহমান।

অনুষ্ঠানে ডিএসইর দীর্ঘ পথচলা নিয়ে স্মৃতিচারণ করেন প্রতিষ্ঠানটির সাবেক সভাপতি ও বর্তমান পরিচালক রকিবুর রহমান, সাবেক সভাপতি ও সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, ডিএসইর সাবেক সভাপতি আহসানুল ইসলাম টিটু প্রমুখ

খায়রুল হোসেন বলেন, ২০১০ সালের ধসের পর পুঁজিবাজারে ব্যাপক সংস্কার হয়েছে। বাজার এখন একটি স্থিতিশীলতার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। অর্থমন্ত্রী সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে বলেছেন আগামী ২০২০ সালে বাজার একটি শক্তিশালী অবস্থানে পৌঁছাবে। তার মতোই আমরাও এটি বিশ্বাস করি।

Comments are closed.