Deshprothikhon-adv

পিপলস লিজিংয়ের চেয়ারম্যান এমডি বিনিয়োগকারীদের তোপের মুখে!

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

agmশেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক খাতের কোম্পানি পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেডের এ কি কান্ড! দুই পক্ষের হৈ হুল্লোড় মধ্যে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) পন্ড হয়েছে। বিনিয়োগকারীদের তোপের মুখে পড়েছেন কোম্পানির চেয়ারম্যান, ব্যবস্থাপন পরিচালকসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টায় রাজধানীর রাওয়া কনভেনশন হলে অনুষ্ঠিত এজিএমে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বাক বিতন্ডা দেখা দেয়। পাশাপাশি এজিএমে উত্থাপনের আগেই সব এজেন্ডা কোম্পানির ভাড়া করা লোকজন পাস করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিনিয়োগকারীরা।

জানা যায়, ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ সমাপ্ত অর্থবছরের এজিএমের শুরুতে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ এজেন্ডা উত্থাপনের আগেই হলের ভিতরের লোকজন সম্মিলিতভাবে পাশ পাশ বলে চিৎকার করতে থাকে। পরে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা এতে বাধা প্রদান করলে বাক বিতন্ডার সৃষ্টি হয়।

উক্ত সংঘাতের পর পুলিশ এসে কোম্পানির চেয়ারম্যান, ব্যবস্থাপন পরিচালকসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সরিয়ে নেয়। সে সময়েই এজিএম সম্পন্ন হয়েছে বলেও কোম্পানির পক্ষ থেকে জানানা হয়। আর এতে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা ক্ষুদ্ধ হয়ে হলের চেয়ার টেবিল ভাংচুরের চেষ্টা করে।

এ বিষয়ে সাধারণ বিনিয়োগকারী পক্ষে পুঁজিবাজার ঐক্য পরিষদের সভাপতি সেলিম চৌধুরী বলেন, সমাপ্ত অর্থবছরে কোন প্রকার লভ্যাংশ ঘোষণা করেনি পিপলস লিজিং। যাতে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা মর্মাহত। আর কোম্পানির এ রকম হটকারী সিদ্ধান্ত বিনিয়োগকারীদের মানতে বাধ্য করতেই এজিএমে বহিরাগত লোকজন এনে সকল এজেন্ডা পাশ করার পায়তারা করে।

পরবর্তীতে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কোন কথা না শুনেই পুলিশের সহায়তায় পালিয়ে যায় বলেও জানান তিনি। এ বিষয়ে কোম্পানির সঙ্গে একাধিক বার যোগাযোগ করা হলেও কোন প্রকার মন্তব্য পাওয়া যায় নি।

উল্লেখ্য, ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ হিসাব বছরের জন্য কোনো লভ্যাংশ সুপারিশ না করায় এরই মধ্যে ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে নেমে এসেছে প্রতিষ্ঠানটি। সর্বশেষ নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, ২০১৫ হিসাব বছরে পিপলস লিজিংয়ের শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ৩ টাকা ৩ পয়সা, আগের বছর যেখানে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৭৬ পয়সা। ২০১৪ সালের লভ্যাংশ হিসেবে কোম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার দেয়।

এদিকে চলতি হিসাব বছরের প্রথমার্ধে (জানুয়ারি-জুন) শেয়ারপ্রতি ১ টাকা ৪৪ পয়সা লোকসান দেখিয়েছে পিপলস লিজিং, যেখানে আগের বছর একই সময়ে তাদের ইপিএস ছিল ১০ পয়সা। ৩০ জুন কোম্পানির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়ায় ১১ টাকা ৬৮ পয়সা, ২০১৫ সালের একই তারিখে যা ছিল ১৭ টাকা ৬২ পয়সা। সর্বশেষ সার্ভিল্যান্স রেটিং অনুসারে পিপলস লিজিংয়ের দীর্ঘমেয়াদি ঋণমান ‘ট্রিপল বি ২’ ও স্বল্পমেয়াদে ‘এসটি-৩’।

Comments are closed.