Deshprothikhon-adv

পুঁজিবাজারে বিদেশী বিনিয়োগ বাড়াতে উদ্যোগ নিচ্ছে ডিএসই

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

dse lago curentশহিদুল ইসলাম, শেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: পুঁজিবাজারে বিদেশী বিনিয়োগ বাড়াতে উদ্যোগ নিচ্ছে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)।ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ মনে করছে, বিদেশী বিনিয়োগ বাড়ানো গেলে বাজারের বর্তমানে তারল্য প্রবাহ বাড়বে। সেই সঙ্গে দেশী বিনিয়োগকারীরাও নতুন করে বিনিয়োগে আসবে।

তাতে ব্যক্তি ও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা আরেকটু সক্রিয় হবে। তাতে বাড়বে স্থানীয় বিনিয়োগও। বাজার সংশ্লিষ্টদের মাঝেও নতুন করে আশার সঞ্চার হবে। বিদেশী বিনিয়োগের পথে কোন বাধা আছে কী-না, এই বিনিয়োগ বাড়াতে করণীয় নিয়ে আলোচনা করতে রবিবার ডিএসই সংশ্লিষ্ট ব্রোকারদের সঙ্গে বৈঠক করেছে।

ডিএসইতে অনুষ্ঠিত বৈঠকে লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ, আইডিএলসি সিকিউরিটিজ, ব্র্যাক ইপিএল স্টক ব্রোকারেজ, সিটি ব্রোকারেজ ও এমটিবি সিকিউরিটিজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, ব্রোকার হাউসের প্রধান নির্বাহীরা বিদেশী বিনিয়োগের ক্ষেত্রে কয়েকটি বাধার কথা তুলে ধরেন। এর অন্যতম হচ্ছে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর সহযোগিতা না করা।

অন্যটি লেনদেন স্যাটলমেন্ট। তারা বলেন, ব্রোকার হাউসের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট কোম্পানির তথ্য-পরিসংখ্যান, গবেষণা রিপোর্ট বিদেশী ফান্ড ম্যানেজারের কাছে দেয়ার পরও তারা নিজেরা সংশ্লিষ্ট কোম্পানির সঙ্গে কথা বলতে আগ্রহ দেখান। তাদের নিজস্ব কিছু জিজ্ঞাসা থাকে যেগুলো সরাসরি কোম্পানির কাছ থেকে জেনে পরিষ্কার হতে চান।

কিন্তু বেশিরভাগ কোম্পানি এতে সাড়া দেয় না। কোনভাবেই তারা বিদেশী বিনিয়োগকারীদের মিটিংয়ের সময় দেয় না। এই বৈঠকে ব্রোকার হাউসের নির্বাহীরা বলেন, কোম্পানিগুলো সহযোগিতা করলে বিদেশী বিনিয়োগ ২০ থেকে ৩০ শতাংশ পর্যন্ত বেড়ে যাবে। অন্যদিকে বাংলাদেশ ও বিশ্বের অন্যান্য দেশের সরকারী ছুটির দিন ভিন্ন হওয়ায় লেনদেন নিষ্পত্তি সংক্রান্ত কিছু সমস্যা দেখা দেয়।

বিশেষ করে বৃহস্পতিবার এখানে যে শেয়ার কেনাবেচা হয় তার স্যাটলমেন্ট হয় সোমবার। শুক্রবার ও শনিবার বাংলাদেশে ছুটি। অন্যদিকে রবিবার অন্যান্য দেশে ছুটি থাকে। এই সময়ের মধ্যে তাদের মধ্যে কোন যোগাযোগ করার সুযোগ থাকে না। তাই স্যাটলমেন্টের আগে তাদের কোন নির্দেশনা থাকলে সেগুলো কাজে লাগানো যায় না।

এ বিষয়ে ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাজেদুর রহমান বলেন, তারা বাজার উন্নয়নে বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারের সঙ্গে বৈঠক করছেন। এরই অংশ হিসেবে রবিবার বিদেশী বিনিয়োগে জড়িত ব্রোকার হাউসগুলোর সঙ্গে বৈঠক করা হয়। তারা কিছু বিষয় তুলে ধরেছে। ডিএসই সেগুলো নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করবে।

Comments are closed.