Deshprothikhon-adv

পুঁজিবাজারে ৬ মাসে যে সকল ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়েছে

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

BANK LAGOশেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংক খাতের কোম্পানির মধ্যে চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে অধিকাংশ ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়েছে। চলতি অর্থবছরের ঋণ বাড়াতে ব্যবসার ধরনেও বৈচিত্র্য এনেছে অধিকাংশ ব্যাংক। আমদানি-রফতানি বাণিজ্যে ব্যাংকগুলোর কমিশন আয়ও ভালো হচ্ছে। তাই ব্যাংকের গতি ফিরতে শুরু করেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এর পেছনে কারন হিসেবে সংশ্লিষ্টরা বিভিন্ন কারন উল্লেখ করেছেন। দেখা গেছে, খেলাপি ঋণ কমাতে অধিকাংশ ব্যাংক টাস্কফোর্স গঠন করেছে। ব্যাংকগুলো ঋণ বহুমুখীকরণের মাধ্যমে নতুন নতুন খাতে বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে। রফতানি আয়ও এখন ভালো হচ্ছে। আমদানি থেকেও ব্যাংকগুলোর কমিশন আয় হচ্ছে। সব মিলিয়ে ব্যাংকগুলোর কাছে কিছু উদ্বৃত্ত অর্থ থাকলেও মুনাফা ভালো হচ্ছে।

সার্বিকভাবে বেশিরভাগ ব্যাংক ভালো মুনাফা করলেও শেয়ারবাজারে ব্যাংকগুলোর পরিস্থিতি ভালো যাচ্ছে না। অনেক ব্যাংকের শেয়ারদর এখন অভিহিত মূল্যের নিচে চলে এসেছে। এ ছাড়া ঋণ বাড়লেও এখনও তা আশানুরূপ না হওয়ায় ১ লাখ ২৪ হাজার কোটি টাকা উদ্বৃত্ত পড়ে আছে। অবশ্য এ অর্থের বড় অংশ সরকারি সিকিউরিটিজে বিনিয়োগ থাকায় পুরোটাই অলস নয়।

শেয়ারবাজারের জন্য মূল্য সংবেদনশীল বিবেচনায় তালিকাভুক্ত ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা আগে থেকে প্রকাশের ওপর নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বিধিনিষেধ রয়েছে। ব্যাংকগুলো বিএসইসির কাছে এ তথ্য দেওয়ার পর স্টক এক্সচেঞ্জের ওয়েবসাইটে তা প্রকাশ করে। এ জন্য কিছু দিন সময় লাগে।

বিভিন্ন সূত্র থেকে মোট ২১টি ব্যাংকের পরিচালন মুনাফার তথ্য পাওয়া গেছে। যেসব ব্যাংকের তথ্য পাওয়া গেছে, এদের মধ্যে পরিচালন মুনাফায় শীর্ষে রয়েছে বেসরকারি খাতের ইসলামী ব্যাংক। ব্যাংকটি প্রথম ছয় মাসে ৮৫৪ কোটি টাকার মুনাফা করেছে। আগের বছরের একই সময়ে যা ছিল ৮২০ কোটি টাকা।

আর ঋণ কেলেঙ্কারির কারণে বেশ কিছু দিন ধরে আলোচনায় থাকা রাষ্ট্রীয় মালিকানার বেসিক ব্যাংক আগের মতোই লোকসান দিয়েছে। তবে লোকসানের পরিমাণ কমে হয়েছে ৪৬ কোটি টাকা। গত বছরের একই সময়ে লোকসান ছিল ১৬৯ কোটি টাকা। মূলত বিভিন্ন অনিয়মের মাধ্যমে বিতরণ হওয়া ঋণের একটি অংশ পুনঃতফসিল করায় লোকসান কিছুটা কমেছে।

ন্যাশনাল ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ৩৯৫ কোটি থেকে বেড়ে হয়েছে ৬১০ কোটি টাকা। প্রাইম ব্যাংক গেল বছরের প্রথমার্ধে ৩১৫ কোটি টাকা মুনাফা করলেও এবার করেছে ৪০১ কোটি টাকা। এ সময়ে সাউথইস্ট ব্যাংক মুনাফা করেছে ৪১৫ কোটি টাকা, যা ছিল মাত্র সাড়ে ২৭ কোটি টাকা।

চলতি বছরের প্রথমার্ধে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক মুনাফা করেছে ১৭৫ কোটি টাকা, যমুনা ব্যাংক ২০১ কোটি টাকা, পূবালী ব্যাংক ৩১০ কোটি টাকা ও ব্যাংক এশিয়া ২৭৮ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা করেছে।

এ সময়ে আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ৩১০ কোটি টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ৩৫০ কোটি টাকা। সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের মুনাফার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে আগের চেয়ে ১৬ কোটি টাকা বেড়ে হয়েছে ২২৬ কোটি টাকা। এনসিসি ব্যাংক গত বছর প্রথমার্ধে ১৮০ কোটি টাকা মুনাফা করেছিল, এটি এবার বেড়ে হয়েছে ২০০ কোটি টাকা। এক্সিম ব্যাংকের মুনাফা আগের বারের চাইতে মাত্র ৫ কোটি বেড়ে হয়েছে ২৫৫ কোটি টাকা।

তবে এ হিসাবটি চূড়ান্ত নয়। এখান থেকে ঋণের শ্রেণিমান বিবেচনায় নির্ধারিত হারে নিরাপত্তা সঞ্চিতি (প্রভিশন) সংরক্ষণ ও সরকারকে কর পরিশোধের পর নিট মুনাফার হিসাব হয়। সে ক্ষেত্রে প্রাথমিকভাবে পাওয়া এ তথ্য-উপাত্ত পরবর্তীতে কিছুটা কম বেশি হতে পারে।

Comments are closed.