Deshprothikhon-adv

ফেসবুকে গুলশান আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলাকারীদের পরিচয়

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

FFশেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা:  গুলশানের আর্টিজান রেস্তোরাঁয় ‘হামলাকারীদের’ ছবি সাইট ইন্টেলিজেন্স প্রকাশ করার পর তাদের পরিচয় বেরিয়ে আসছে ফেইসবুকে। যে পাঁচ জঙ্গির ছবি প্রকাশ করা হয়েছে তার মধ্যে তিনজনের পরিচয় তুলে ধরেছেন তাদের স্কুল-কলেজ সূত্রে পরিচিতজনরা।

তাদের একজন নিব্রাস ইসলাম নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র। সাবেক সহপাঠীরা সনাক্ত করে তার ছবি ও পরিচয় সামনে এনেছে। নিব্রাস ইসলামের এই ছবি ও সাইটের দেওয়া ছবি পাশাপাশি দিয়ে শেয়ার করা হচ্ছে ফেইসবুকে। আরেকজনের আগের ও সাইটের দেওয়া ছবি পাশাপাশি ‍দিয়ে তার পরিচয় প্রকাশ করেছেন এক প্রবাসী।

মীর সাবিহ মুবাশ্বের স্কলাসটিকার ছাত্র। এ লেভেল পরীক্ষার আগে গত মার্চে মুবাশ্বের নিখোঁজ হন বলে তার এক সহপাঠীর বরাত দিয়ে জানিয়েছেন তিনি।   মাহবুব রাজীব নামে আরেকজন ফেইসবুকে আরেক জঙ্গির ছবি দিয়েছেন।

jongi picরোহান ইমতিয়াজ নামের এই ছেলেও স্কলাসটিকার সাবেক ছাত্র। বাবা-মার সঙ্গে তার ছবির পাশে দেওয়া হয়েছে সাইটের ছবি, যেখানে দুই ছবির মধ্যে মিল পাওয়া যায়। স্কলাসটিকার ছাত্র মীর সাবিহ মুবাশ্বের এ লেভেল পরীক্ষার আগে গত মার্চ থেকে নিখোঁজ বলে তার এক সহপাঠীর ভাষ্য।

রেস্তোরাঁয় নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে ছয় হামলাকারী নিহত এবং একজনকে গ্রেপ্তার হয় বলে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন। তবে ওই হামলায় জড়িত দাবি করে সাইট ইন্টিলিজেন্স যে পাঁচজনের ছবি প্রকাশ করেছে সেগুলোর সত্যতা বাংলাদেশের পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা যায়নি। এদিকে পুলিশ শনিবার রাতে নিহত পাঁচজনের লাশের ছবি প্রকাশ করেছে।

দুই ছবির অন্তত চারজনের চেহারার মিল ধরা পড়ে। বাকি একজনের ছবি একই ব্যক্তির কি না, তা স্পষ্ট নয়। পুলিশ এই পাঁচজনের নাম বলেছে- আকাশ, বিকাশ, ডন, বাঁধন ও রিপন। তাদের বিস্তারিত পরিচয় জানানো হয়নি। ঢাকার কূটনীতিকপাড়া গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে একদল অস্ত্রধারী ঢুকে দেশি-বিদেশি অতিথিদের জিম্মি করে।

প্রায় ১২ ঘণ্টা পর শনিবার সকালে সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে কমান্ডো অভিযানের মধ্য দিয়ে রেস্তোরাঁর নিয়ন্ত্রণ নেয় নিরাপত্তা বাহিনী। সেখান থেকে ১৩ জন জিম্মিকে জীবিত উদ্ধার এবং ২০ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহতদের মধ্যে ১৭ জনই বিদেশি বলে  আইএসপিআর জানায়।

Comments are closed.