Deshprothikhon-adv

ট্রাস্ট ও ওয়ান ব্যাংকের ৮০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

bsec lagoশেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত ব্যাংক খাতের ২ কোম্পানির ৮০০ কোটি টাকার নন-কনভারটিবেল সাবঅডিনেটেড বন্ড ছাড়ার প্রস্তাব অনুমোদন করেছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড একচেঞ্জে কমিশন (বিএসইসি)। ব্যাংক ২টি হলো- ওয়ান ব্যাংক এবং ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড। আজ বৃহস্পতিবার কমিশনের ৫৭৭তম সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে । বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড শেয়ারবাজারে ৪০০ কোটি টাকার নন-কনভারটিবেল সাবঅডিনেটেড বন্ড ছাড়বে। যার মেয়াদ হবে ৭ বছর। বন্ডের প্রতি ইউনিটের অভিহিত মূল্য ১০ লাখ টাকা। বন্ডটির বৈশিষ্ট্য হবে- নন কনভার্টেবল, তালিকাভুক্ত হবে না, সম্পূর্ণ অবসায়ন যোগ্য, ফ্লটিং রেটেড, সাবওর্ডিনেটেড বন্ড।

এই বন্ডটি ইস্যুর মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ দিয়ে টায়ার টু ক্যাপিটাল বেইজের শর্ত পূরণ করা হবে। স্থানীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান, কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান এবং উচ্চ সম্পদশালী ব্যক্তিরা এই বন্ডে বিনিয়োগ করতে পারবেন। বন্ডটির মেন্ডেটেড লিড অ্যারেঞ্জার হিসেবে কাজ করছে স্ট্যান্ডার্ড চ্যাটার্ড ব্যাংক এবং ট্রাস্টি হিসেবে কাজ করছে গ্রীন ডেলটা ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড।

অন্যদিকে, ট্রাস্ট্র ব্যাংক লিমিটেড শেয়ারবাজারে ৪০০ কোটি টাকার নন-কনভারটিবেল সাবঅডিনেটেড বন্ড ছাড়বে। যার মেয়াদ হবে ৭ বছর। বন্ডের প্রতি ইউনিটের অভিহিত মূল্য ১০ কোটি টাকা। বন্ডটির বৈশিষ্ট্য হবে- নন কনভার্টেবল, তালিকাভুক্ত হবে না, সম্পূর্ণ অবসায়ন যোগ্য, ফ্লটিং রেটেড, সাবওর্ডিনেটেড বন্ড।

এই বন্ডটি ইস্যুর মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ দিয়ে টায়ার টু ক্যাপিটাল বেইজের শর্ত পূরণ করা হবে। স্থানীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান, কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান এবং উচ্চ সম্পদশালী ব্যক্তিরা এই বন্ডে বিনিয়োগ করতে পারবেন। বন্ডটির মেন্ডেটেড লিড অ্যারেঞ্জার হিসেবে কাজ করছে স্ট্যান্ডার্ড চ্যাটার্ড ব্যাংক এবং ট্রাস্টি হিসেবে কাজ করছে সেনা কল্যাণ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড।

Comments are closed.