Deshprothikhon-adv

প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা পুঁজিবাজারে নিস্ক্রিয়

0

dse-up-dowenশেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: পুঁজিবাজারে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা দর্শকের ভুমিকা পালন করায় বাজার ঘুরে দাঁড়াতো পারছে না। শত চেষ্টার পরও বিনিয়োগকারীরা একটি স্থিতিশীল বাজার উপহার পাচ্ছে না। ফলে বাজারের প্রতি বরাবরের মতো এখন ক্ষোভ বিরাজ করছে বিনিয়োগকারীদের।

এদিকে সূচক কমছে তো অন্যদিকে লেনদেন সামান্য বাড়ছে। এমন উত্থান পতনের মধ্য দিয়ে চলছে দেশের শেয়ারবাজার। ওঠানামার মধ্যে থাকলেও গতিশীল হচ্ছে না এ বাজার। সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসেও এমন চিত্র লক্ষ্য করা গেছে।

এদিন সূচকের মিশ্র প্রবনতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। দিন শেষে টাকার অংকে লেনদেন সামান্য বেড়েছে। তবে উভয় বাজারে লেনদেন হওয়া অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারে দরপতন হয়েছে। সব মিলিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে পারছে না শেয়ারবাজার।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সরকার নানামুখি সংস্কার কাজ করেছে স্টক এক্সচেঞ্জগুলোতে। এ সংস্কার দীর্ঘ মেয়াদী সুফল বয়ে আনবে। কিন্তু তাৎক্ষণিক বাজার স্বাভাবিক গতিতে চলার মতো কোনো উপাদান বাজারে লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। এর মধ্যে বাজেটে কোনো সুনির্দিষ্ট‍ প্রণোদনা ও বক্তব্য শেয়ারবাজার সস্পর্কে ছিল না।

এতে অনেকেরই বাজারের প্রতি আস্থা কমেছে। সেই সঙ্গে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা বাজারে বেশ নিস্ক্রিয়। সব মিলিয়ে বাজার ঘুরে দাঁড়াতে পারছে না। এ অবস্থায় স্টেক হোল্ডার ও সরকার এগিয়ে ‍না আসলে বাজারের প্রতি দিন বিনিয়োগকারীদের আস্থার সংকট তীব্র হবে বলে মনে করছেন তারা।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ৩ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৪০৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এছাড়া ডিএসই৩০ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৭৩৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। তবে ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক দশমিক ৪৭ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৮৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৩৮৭ কোটি টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড ইউনিট। যা আগের দিনের চেয়ে ২৪ কোটি টাকা বেশি। সোমবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৩৬৩ কোটি টাকা। ডিএসইতে মোট ৩১৯টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে বেড়েছে ১০৯টির, কমেছে ১৪১ টির এবং অপরিবর্তিত আছে ৬৯টির শেয়ার দর।

অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ২ পয়েন্ট বেড়ে ৮ হাজার ২৪৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এছাড়া সিএএসপিআই সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে ১৩ হাজার ৫৫২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। তবে সিএসই৫০ সূচক দশমিক ২০ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৪ পয়েন্টে, সিএসই৩০ সূচক ২৮ পয়েন্ট কমে ১২ হাজার ৪৭৪ পয়েন্টে, সিএসআই শরিয়াহ সূচক ১ পয়েন্ট কমে ৯৬৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

সিএসইতে টাকা অংকে লেনদেন হয়েছে ২৫ কোটি টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড ইউনিট। এদিন সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৩৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড ইউনিটের। এর মধ্যে বেড়েছে ৯০টির, কমেছে ১০৬টির এবং অপরিবর্তিত আছে ৩৭টি কোম্পানির শেয়ার দর।

Comments are closed.