Deshprothikhon-adv

ফেসবুকে এখন আলোচনার ঝড় ‘একমির’ শেয়ার

0

acme-labশেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: পুঁজিবাজারে সদ্য তালিকাভুক্ত হওয়া ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানি একমি ল্যাবরেটরিজ লিমিটেডের শেয়ার নিয়ে এখন ফেসবুকে আলোচনার ঝড়। বিনিয়োগকারীরা এখন এই শেয়ার নিয়ে ফেসবুকে নানা স্ট্যার্টাস দিচ্ছেন। কেউ বলেছেন এই শেয়ার ২০০ টাকায় যাবে, আবার কেউ বলেছেন ১০০ টাকায় আসবে। তবে  একমি ল্যাবরেটরিজের শেয়ার নিয়ে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ একটু বেশি লক্ষ্য করা গেছে। মুলত বৃহস্পতিবার এই শেয়ারের দর বাড়ার ফলে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বাড়বে।

sumonএকমি ল্যাবরেটরিজ লিমিটেডের শেয়ার নিয়ে ফেসবুকে শরিফুল আলম সুমন নামে এক বিনিয়োগকারী মন্তব্য লিখেছেন রোববার এ শেয়ার কেমন যাবে, রোববার থেকে ব শেয়ারের খেলা শুরু,  সেখানে ২১ জন বিনিয়োগকারী মন্তব্য লিখেছেন। আর ডি শ্যামল নামে এক বিনিয়োগকারী লিখেছেন, একমির আর্থিক বছর চলতি মাসে শেষ হবে। এরপর বিনিয়োগকারীদের জন্য ভালো লভ্যাংশ ঘোষণা আসছে। এটা বিনিয়োগকারীরা চিন্তা করতে পারবেন না।

mutalibমুতালিব হোসেন নামে আরেক বিনিয়োগকারী লিখেছেন, এ পর্যন্ত বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে আসা সব কোম্পানির শেয়ারে গেম হয়েছে। একমির শেয়ারে গেইম হবে। আগামী তিন কার্যদিবস এটা হল্ট থাকবে। এ শেয়ার তার মতে ২৫০ হবে।

masudমাসুদ রানা নামে এক বিনিয়োগকারী লিখেছেন, আগামী সাপ্তাহ পুরোটাই একমির গেম হবার অপার সম্ভাবনা। আশাকরি সবাই ঈদটা ভালোভাবে কাটানোর জন্য ভালো একটা সেল রেট পাবেন।

acme signalমিজানুর রহমান নামে এক বিনিয়োগকারী লিখেছেন, একমি ল্যাবরেটরিজ লিমিটেডের শেয়ার এখন বাই সিগনালে।

মঙ্গলবার এই শেয়ার প্রথম লেনদেন শুরু হলে বুধবার দরপতনে কিছু কিছু বিনিয়োগকারী লিখছেন একমি ল্যাবরেটরিজের শেয়ারের দর ৯০ টাকার ঘরে আসবে। আর বৃহস্পতিবার যখন শেয়ার দর ৮.৪০ টাকা বা ৭.৫৩ শতাংশ বেড়েছে তখন বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ শেষ নেই।

acme 2এছাড়া বর্তমান মন্দা বাজারে বিনিয়োগকারীদের লাভের হাতছানি দিচ্ছে এরই ধারবাহিকতায় লেনদেন শুরুর প্রথমদিনে ৩৪.৫০ টাকা বা ৪০.৪৯ শতাংশ দাম বেড়েছে কোম্পানিটি। কিন্তু দ্বিতীয় দিনে কিছুটা মূল্য সংশোধন হলেও তৃতীয় দিনে বিনিয়োগকারীর ব্যাপক আগ্রহে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৮.৪০ টাকা বা ৭.৫৩ শতাংশ বেড়েছে।

সাধারণত নতুন কোম্পানি বাজারে আসলে তার প্রতি বিনিয়োগকারীদের একটা ঝোঁক থাকে। বিশেষ করে লেনদেন শুরুর দিকে এসব কোম্পনির শেয়ার দর কিছুটা উর্ধ্বমুখী থাকে। আর সেই সুযোগে মুনাফার আশায় এসব কোম্পানিতে বিনিয়োগ করেন শেয়ারহোল্ডারগণ।

পাশাপাশি একমির আর্থিক বছর চলতি মাসে শেষ হবে। এরপর সমাপ্ত অর্থবছরের সভা করে বিনিয়োগকারীদের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করতে পারে এমন আশায় এ কোম্পানির প্রতি আগ্রহী বিনিয়োগকারীরা। তাই এ কোম্পানি সম্ভাবনার হাতছানি দিচ্ছে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত বৃহস্পতিবার দেশের উভয় স্টক একচেঞ্জে লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে কোম্পানিটি। দিনশেষে ডিএসইতে একমি ল্যাবের ৩৮ লাখ ৭২ হাজার ৩১৩টি শেয়ার ১৮ হাজার ৭৪১ বার হাতবদল হয়। যার বাজার মূল্য ৪৫ কোটি ৭০ হাজার টাকা। আর সিএসই’তে এ্যাকমি ল্যাবের ৭ লাখ ২১ হাজার ৬৮টি শেয়ার ৫ হাজার ২১৮ বার হাতবদল হয়। যার বাজারমূল্য ৮ কোটি ৪১ লাখ ৬৫ হাজার টাকা।

acme shareএছাড়া  সপ্তাহজুড়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের শীর্ষে ছিল একমি ল্যাবরেটরিজ লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে ১ কোটি ৭৯ লাখ ২৫ হাজার ৯৯০টি শেয়ার ২১৬ কোটি ৪৪ লাখ ৮০ হাজার টাকায় লেনদেন হয়েছে এই কোম্পানির।

ভালো মৌল ভিত্তি কোম্পানি হিসেবে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ থাকায় এ কোম্পানির শেয়ারের দিকে ঝুঁকছেন। সপ্তাহের শেষ দুই কার্যদিবসে বড় বড় সিকিউরিটিজ হাউজগুলোতে লেনদেনের শীর্ষে ছিল একমি ল্যাবরেটরিজ লিমিটেড। ডিএসই সূত্রে তথ্য জানা গেছে, কোম্পানির শেয়ারটির সর্বশেষ লেনদেন হয়েছে ১২০ টাকা দরে।

গুঞ্জন-গুজব চলছে, একমি ল্যাবরেটরিজ আর্থিক বছর চলতি মাসে শেষ হবে। এ কোম্পানিতে ভালো ডিভিডেন্ড দিবে। বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ ধরে রাখার জন্য এ কোম্পানি নাকি ভালো ডিভিডেন্ড দিচ্ছে। এসব কারনে এখন বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বেড়েছে। তবে গুজব ও গুঞ্জনে কান না দেওয়ার জন্য বাজার বিশ্লেষকরা বিনিয়োগকারীদের সর্তক করেছেন। কোম্পানির ফান্ডামেটাল অবস্থা দেখে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ করতে বলেছেন।

Comments are closed.