Deshprothikhon-adv

ডিএসইতে সূচক কমেছে ২৩, সিএসইতে ৩৮ পয়েন্ট

0

dse-cseশেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: পুঁজিবাজারে আজ সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক ও লেনদেন উভয়ই কমে শেষ হয়েছে এ দিনের কার্যক্রম।  ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে প্রায় ২৩ পয়েন্ট এবং  সিএসসিএক্স কমেছে ৩৮ পয়েন্ট। উভয় পুঁজিবাজারে মোট লেনদেন হয়েছে ২৭২ কোটি ১৯ লাখ টাকা।

গত বৃহস্পতিবার উভয় পুঁজিবাজারে লেনদেন হয়েছিল ৩২৮ কোটি ৭২ লাখ টাকা। সুতরাং গত কার্যদিবসের তুলনায় এদিন উভয় পুঁজিবাজারে লেনদেন কমেছে ৫৬ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। ডিএসই ও সিএসই’র ওয়েবসাইট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসইতে টাকার অঙ্কে মোট লেনদেন হয়েছে ২৫৮ কোটি ১ লাখ। গত বৃহস্পতিবার লেনদেন হয়েছিল ৩১১ কোটি ১০ লাখ টাকা। সুতরাং এক কার্যদিবসের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৫৩ কোটি ৯৮ লাখ টাকা।

ডিএসইতে প্রধান সূচক ডিএসইএক্স প্রায় ২৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ২৭৫ পয়েন্টে, ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৫ দশমিক ৪৭ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৫০ পয়েন্টে এবং ৭ দশমিক ২২ পয়েন্ট কমে ডিএসই-৩০ সূচক দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৬৬০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩১৪টি কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৬৪টির, কমেছে ২০৯টির এবং কোনও পরিবর্তন হয়নি ৪১টি কোম্পানির শেয়ার দর।

এছাড়া টাকার অঙ্কে এদিন ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানি হলো-  লিন্ডে বাংলাদেশ, ডোরিন পাওয়ার, ইউনাইটেড পাওয়ার, বাংলাদেশ বিল্ডিং সার্ভিস, মবিল যমুনা, লংকা-বাংলা ফাইন্যান্স, বিএসআরএম লিমিটেড, সাপোর্ট লিমিটেড, ফারইস্ট নিটিং এবং স্কয়ার ফার্মা।

অন্যদিকে সিএসইতে মোট শেয়ার লেনদেনের পরিমান ১৪ কোটি ১৮ লাখ টাকা। গত বৃহস্পতিবার লেনদেন হয়েছিল ১৬ কোটি ৭৩ লাখ টাকার শেয়ার। সুতরাং এক কার্যদিবসের ব্যবধানে সিএসইতে শেয়ার লেনেদেন কমেছে ২ কোটি ৫৫ লাখ টাকার বেশি।

সিএসই’র প্রধান সূচক সিএসসিএক্স ৩৮ দশমিক ৯৪ পয়েন্ট কমে ৮ হাজার ৪ পয়েন্টে, সিএএসপিআই সূচক ৬৬ দশমিক ০১ পয়েন্ট কমে ১৩ হাজার ১৬৬ পয়েন্টে, সিএসই-৫০ সূচক ৩ দশমিক ০৫ পয়েন্ট কমে ৯৬৯ পয়েন্টে এবং সিএসই-৩০ সূচক ২৬ দশমিক ০৪ পয়েন্ট কমে ১২ হাজার ২৭২ পয়েন্টে অবস্থান করছে। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ২১৯টি কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৫৬টির, কমেছে ১৩৯টির এবং কোনও পরিবর্তন হয়নি ২৪টি কোম্পানির শেয়ার দর।

টাকার অঙ্কে এদিন সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানি হলো- ডোরিন পাওয়া, বিএসআরএম লিমিটেড, তিতাস গ্যাস, বেক্সিমকো লিমিটেড, বিএসআরএম স্টিল, ফারইস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্স, লংকা-বাংলা ফাইন্যান্স, ইউনাইটেড পাওয়ার, বাংলাদেশ বিল্ডিং সার্ভিস এবং কেয়া কসমেটিকস।

Leave A Reply