Deshprothikhon-adv

আইপিওতে আসতে এনার্জিপ্যাককে বিএসইসির চিঠি

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

enargepackশেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: পুরনো নিয়মে নয়; নতুন নিয়মে প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) আসতে এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশন লিমিটেডকে চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। বিএসইসির বিশেষ একটি সূত্র সোমবার রাতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সূত্র জানায়, ১৭ এপ্রিল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই), চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই), ইস্যু-ম্যানেজার আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস এবং এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশন লিমিটেডে পাঠিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালের ২৭ অক্টোবর স্থির মূল্য পদ্ধতিতে পাবলিক ইস্যু রুলস-২০০৬ মেনে আবেদন করে কোম্পানিটি। তবে আইপিও অনুমোদনের আগে পাবলিক ইস্যু রুলস-২০১৫ প্রণীত হয়। বিএসইসির পুরান এই নিয়ম বাতিল হওয়ায় কোম্পানিকে পাবলিক ইস্যু রুলস-২০১৫ অনুযায়ী আবেদন করতে হবে। আসতে হবে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে।

গত ৫ জানুয়ারি বিএসইসির কমিশন সভায় এনার্জিপ্যাকের আইপিও অনুমোদন দেওয়া হয়। আইপিওর মাধ্যমে কোম্পানিটি ১৫ টাকা প্রিমিয়ামসহ ২৫ টাকা দরে ১ কোটি ৬৭ লাখ ৩০ হাজার শেয়ার ইস্যুর অনুমোদন পায়। এর মাধ্যমে বাজার থেকে ৪১ কোটি ৮২ লাখ টাকা সংগ্রহ করার কথা ছিল।

উল্লেখ, গত বছরের ডিসেম্বর মাসে পাবলিক ইস্যু রুলস, ২০০৬ সংশোধন করে বিএসইসি। এই সংশোধনীর মাধ্যমে আইনে বেশ কিছু পরিবর্তন আনা হয়। এর মধ্যে প্রধান পরিবর্তনটি হচ্ছে-ফিক্সড প্রাইস মেথডে (কোম্পানির প্রস্তাবিত দর) প্রিমিয়ামে কোনো কোম্পানির আইপিও অনুমোদন না করা। কোনো কোম্পানি আইপিওতে প্রিমিয়াম চাইলে সেটিকে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে বাজারে আসতে হবে।

জানা গেছে, গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর পাবলিক ইস্যু রুলসের সংশোধনীর গেজেট প্রকাশ করে বিজি প্রেস। আর চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি বিকেলে সেটি বিএসইসির হাতে পৌঁছায়। সেদিন দুপুরেই অনুমোদন পায় এনার্জিপ্যাকের আইপিও। ফলে নিজের করা আইন লংঘনের অভিযোগ উঠে বিএসইসির বিরুদ্ধে। সমালোচনার মুখে বিএসইসি প্রথমে এনার্জিপ্যাকের আইপিওটি পর্যালোচনার কথা জানায়। গত সপ্তাহে সেটি বাতিলই করে দেয়।

Leave A Reply