Deshprothikhon-adv

আইপিও কোটার মেয়াদ বাড়ানোর ফলে পুঁজিবাজার ঊর্ধ্বমুখী

0

dse-cse lagoআফজাল হোসেন লাভলু, শেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: পুঁজিবাজারে আজ সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে সুচকের উর্ধ্বমুখী প্রবনতার মধ্যে দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। তবে আইপিও সুখবরে বিনিয়োগকারীদের মাঝে কিছুটা স্বস্তি বিরাজহ করছে। ২০১০ সালে পুঁজিবাজারে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সংরক্ষণের লক্ষ্যে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) ২০ শতাংশ কোটার সময়সীমা ৩০ জুন ২০১৭ পর্যন্ত বাড়াতে অর্থ মন্ত্রণালয়কে প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

বাজার সংশ্লিষ্টদের মতে, পুঁজিবাজারে সুখবরেই লেনদেনে সুবাতাস লেগেছে। সম্প্রতি ডিএসই ও স্টক ব্রোকারদের বৈঠকে বাজারের তারল্য প্রভাব বাড়ানোর তাগিদ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি তারল্য প্রভাহ বাড়াতে ১১ দফা প্রস্তাবও করা হয়েছে। অন্যদিকে, ওই দিনই ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের আইপিও কোটার মেয়াদ আরো এক বছর বাড়ানোর জন্য অর্থমন্ত্রানালয়ের নিকট সুপারিশ করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

এছাড়াও অর্থমন্ত্রানালয় থেকে বাজারের লেনদেনের গতি পরিবর্তন যথাযথ কাজ করার তাগিদ দেওয়া হয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় আজ দিনশেষে বেড়েছে ডিএসইর লেনদেন। এদিকে আজ বেশির ভাগ কোম্পানির দরবৃদ্ধিতে দেশের উভয় বাজারে সূচক বেড়েছে। পাশাপাশি আর্থিক লেনদেনের পরিমাণও বেড়েছে। এ নিয়ে টানা ৩ দিন বাজারে সূচক ও লেনদেন বেড়েছে।

বৃহস্পতিবার সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসই ব্রড ইনডেক্স (ডিএসইএক্স) বেড়েছে ২২.২৪ পয়েন্ট। দিনশেষে সূচক গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৪৩৫৭.৫৩ পয়েন্টে। বুধবার সূচক বেড়েছিল ২৩.৪৯ পয়েন্ট। আর গত ৩দিনে ডিএসই সূচক বেড়েছে ৫৫ পয়েন্ট। এর আগে টানা ৫ দিনের পতনে সূচক কমেছিল ১৪০ পয়েন্ট। লেনদেনে অংশ নেয়া ৩১৫ টি ইস্যুর মধ্যে দিনশেষে দর বেড়েছে ১৬৭টির, কমেছে ১০৪টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৪টির দর।

এদিকে গত কয়েকদিন ধরে শেয়ারবাজারে লেনদেন বাড়ছে। মাত্র কয়েক কার্যদিবস আগেও ডিএসইর লেনদেন নেমে গিয়েছিল ৩০০ কোটি টাকার নিচে। বৃহস্পতিবার তা ৪০০ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৪১২ কোটি ৯৬ লাখ টাকা। ৫ কার্যদিবস পর ৪০০ কোটি টাকার বেশি লেনদেন হলো দেশের প্রধান শেয়ারবাজারে। বুধবার লেনদেন হয়েছিল ৩৮৫ কোটি ৪৪ লাখ টাকা।

লেনদেনের শীর্ষে রয়েছে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স। দিনশেষে কোম্পানিটির ২১ কোটি ১৬ লাখ ৫৫ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা আমান ফিডের লেনদেন হয়েছে ১৯ কোটি ১১ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। ১৩ কোটি ৭৬ লাখ ৫৮ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বিএসআরএম লিমিটেড। লেনদেনে এরপর রয়েছে যথাক্রমে- ওরিয়ন ইনফিউশান্স, কেয়া কসমেটিকস, কেডিএস এক্সেসরিজ, ড্রাগন সোয়েটার, কাশেম ড্রাইসেল, এএফসি এগ্রোবায়োটেক, ফু-ওয়াং সিরামিকস।

দেশের অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সিএসসিএক্স ৩৭.৫১ পয়েন্ট বেড়ে দিনশেষে ৮১৪৮.৩৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেন হয়েছে ৩৫ কোটি ৯ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেওয়া কোম্পানি ও মিউচুয়ালফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১১৭টির, কমেছে ৮২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির দর।

Leave A Reply