Deshprothikhon-adv

দুর্বল মৌল ভিত্তি শেয়ারের দর বাড়ায় উদ্বিগ্ন !

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

dse-cseমহসিন সুজন, শেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: পুঁজিবাজারে আজ সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে সুচকের দরপতনের মধ্যে দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। তবে টানা দরপতনে বিনিয়োগকারীদের মাঝে বাজার নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে। তবে টানা দরপতন বাজারে বেশ কয়েকদিন ধরে দুর্বল মৌল ভিত্তি শেয়ারের টানা দরবৃদ্ধিতে উদ্বিগ্ন বিনিয়োগকারীরা।

বিনিয়োগকারীদের প্রশ্ন যেখানে ভালো মৌল ভিত্তি শেয়ারের দর বাড়ছে না সেখানে দুর্বল মৌল ভিত্তি শেয়ারের দর বাড়ার কারন কি? বর্তমান বাজার পরিস্থিতি নিয়ে ফের কারসাজি চক্র মেতে উঠছে একটি চক্র। গত এক মাসে বেশ কিছু কোম্পানির শেয়ারের দাম দ্বিগুন হয়েছে। তেমনি গত এক বছরের মধ্যে দুর্বল কোম্পানির শেয়ারের দাম সবচেয়ে বাড়ছে।

তাই বর্তমান বাজার পরিস্থিতি কারসাজি বাজারের লক্ষন কিনা তা বুঝে উঠতে পারছে না বিনিয়োগকারীরা। বিনিয়োগকারীরা অভিযোগ করে বলেন, নিয়ন্ত্রক সংস্থার বাজারের প্রতি আরো তদারকি দরকার। বাজার নিয়ে একটি মহল কারসাজিতে মেতে উঠলে তিনি কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। যার ফলে বাজার বার বার স্থিতিশীলতার আভাস দিয়ে দরপতনের গহীনে চলে যায়।

বাজার প্রসঙ্গে এক সিকিউরিটিজ হাউজের নির্বাহী পরিচালক মোঃ মোস্তফা বলেন, পুঁজিবাজারে সুচকের উঠানামা থাকবে এটা স্বাভাবিক। তবে বাজারের এক টানা বাড়া যেমন ভাল নয় তেমনি টানা দরপতন ঠিক নয়। এছাড়া পুঁজিবাজার স্থিতিশীলতার দিকে যেতে একটু সময় লাগবে। যা বাজারের জন্য সুখবর।

হাবিবুর রহমান নামে এক বিনিয়োগকারী বলেন, সার্বিক দিক থেকে পুরোপুরি বাজার এখনোও স্থিতিশীল হয়নি। তবে নিয়ন্ত্রক সংস্থা সহ পুঁজিবাজারের নীতি নির্ধারকেদের আন্তুরিকতা থাকলে খুব শিগরিই বাজার স্থিতিশীল হবে। এছাড়া সাধারণ বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি বড় পুঁজির বিনিয়োগকারীরাও বাজারে ফিরে আসতে শুরু করছে।

অভিজ্ঞ বিনিয়োগকারীদের মতে, পুঁজিবাজারের বতমান পরিস্থিতি অস্থিতিশীল। তবে ঝুঁকি এড়িয়ে মুনাফা করতে হলে দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগকারী হতে হবে। দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ করলে লোকসান হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। এছাড়া বিনিয়োগকারীদের উচিত নিজের ধারণক্ষমতার ওপর ভিত্তি করে বিনিয়োগ করা। শেয়ারধারণ করার ক্ষমতা যত বেশি হবে বিনিয়োগে ঝুঁকি তত কমে যাবে। ঋণ নিয়ে বিনিয়োগ করা উচিত নয়।

বাজার বিশ্লেষক অধ্যাপক মিজানুর রহমান বলেন, বর্তমান পুঁজিবাজার ফের গুজবমুখী হচ্ছে। ফলে কিছু কিছু শেয়ারের দাম বেশি বাড়ছে। এছাড়া গুজবে প্রভাবিত না হয়ে বিনিয়োগের সময় বিনিয়োগকারীদের কোম্পানির আর্থিক অবস্থা ,বিগত দিনে কোম্পানি কোন লভ্যাংশ দিচ্ছে না এবং কোম্পানির মৌলভিত্তি যাচাই করে বিনিয়োগ করা উচিত।

গুজবের কারণে সাধারণ বিনিয়োগকারী বুঝতে পারে না কখন শেয়ার ক্রয় করবে এবং কখন বিক্রি করবে। হুজুগে, গুজবের ওপর নির্ভর করে বিনিয়োগ করলে বিনিয়োগকারী এবং বাজার উভয় ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি মনে করেন।

 

 

Leave A Reply