Deshprothikhon-adv

ডিএসইতে একদিন পরই পতনে লেনদেন

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

dse-cseশেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম, ঢাকা: একদিনের ব্যবধানে ফের দেশের উভয় বাজারে সূচক কমেছে। একই সঙ্গে লেনদেনের পরিমাণও কমেছে। সাম্প্রতিক সময়ের তুলনায় বুধবার সূচক ও লেনদেনে বড় ধরনের পতন হয়েছে। সম্প্রতি দেশের শেয়ারবাজারে মূল্য সূচকের খুবই সামান্য উত্থান বা পতন ঘটছে।

কিন্তু বুধবার একই দিনে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স কমেছে প্রায় ৩০ পয়েন্ট। দেশের অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সিএসসিএক্সের পতন হয়েছে ৬০ পয়েন্টেরও বেশি।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দরপতনে মূল্য সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় দিনের লেনদেন শুরু হয়। শুরুর সে পতন থেকে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি বাজার। লেনদেনের শেষ অবধি বাজারে বিক্রয় চাপ অব্যাহত থাকায় মঙ্গলবারের তুলনায় ২৯.৬০ পয়েন্ট কমে দিনশেষে ডিএসইএক্স ৪৪৪৬.২৮ পয়েন্টে গিয়ে দাঁড়ায়। লেনদেনে অংশ নেয়া ৩০৮ টি ইস্যুর মধ্যে দিনশেষে দর বেড়েছে ১১৩টির, কমেছে ১৪৮টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৭টির দর।

এদিকে টানা ৮ কার্যদিবস ৩০০ কোটি টাকার ঘরে লেনদেন হওয়ার পর মঙ্গলবার ৪০০ কোটি টাকার বেশি লেনদেন হয়েছিল। কিন্তু একদিনের ব্যবধানে ফের ৩০০ কোটি টাকার ঘরে নেমে এসেছে ডিএসইর লেনদেন। মঙ্গলবারের তুলনায় ৬৪ কোটি ৩২ লাখ টাকা কমে বুধবার লেনদেন হয়েছে ৩৭০ কোটি ৭৪ লাখ টাকা।

লেনদেনের শীর্ষে রয়েছে সামিট পাওয়ার। দিনশেষে কোম্পানিটির ১৭ কোটি ৭৫ লাখ ৫২ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা এএফসি এগ্রাবায়োটেকের লেনদেন হয়েছে ১৩ কোটি ১৮ লাখ ৭৯ হাজার টাকা। ১২ কোটি ৪৯ লাখ ৪২ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ।

লেনদেনে এরপর রয়েছে যথাক্রমে- লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, আমান ফিড, ওরিযন ইনফিউশন, সামিট পূর্বাঞ্চল পাওয়ার, অলিম্পিক এক্সেসরিজ, শাহজিবাজার পাওয়ার, ওরিয়ন ফার্মা।

দেশের অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সিএসসিএক্স ৬৬.১২ পয়েন্ট কমে দিনশেষে ৮৩২৩.৫২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেন হয়েছে ২৬ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেওয়া কোম্পানি ও মিউচুয়ালফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৮০টির, কমেছে ১১৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির দর।

Leave A Reply