Deshprothikhon-adv

সিলেট মেট্রোসিটির অর্থ আত্মসাৎ তদন্তে বিশেষ কমিটি

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

সিলেট ব্যুরো, শেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম: পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেক হোল্ডার সিলেট মেট্রো সিকিউরিটিজের বিরুদ্ধে দুই সদস্যের বিশেষ তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। জনৈক দেওয়ান কবির আহমেদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

রোববার বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক মো. সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি অফিস আদেশ জারি করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন কমিশনের কাছে জমা দিতে বলা হয়েছে। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, বিএসইসির উপ-পরিচালক মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া এবং সহকারী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম সিলেট মেট্রো সিকিউরিটিজের বিরুদ্ধে বিশেষ তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করবেন।

তদন্তের প্রয়োজনে সিলেট মেট্রো সিকিউরিটিজের বুক অব একাউন্টস, রেকর্ড এবং দলিলাদি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রদানের জন্য বলা হয়েছে। এক্ষেত্রে সিএসইর চিফ রেগুলেটরি অফিসার (চলতি দায়িত্বে) তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনাকারী কর্মকর্তাদেরকে সিলেট মেট্রো সিকিউরিটিজের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় দলিলাদি সংগ্রহের ক্ষেত্রে সহায়তা করবেন।

সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন বিধিমালা-২০০০ এর বিধি ১৫ ও ১৬, ডিপজিটরি (ব্যবহারিক) প্রবিধানমালা ২০০৩ এর বিধি ৩৬ এবং সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স ৯৬৯-এর সেকশন ৬(১) অনুসারে এ সকল দলিলাদি প্রদানের নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বিএসইসির ৫২৯তম কমিশন সভায় সিলেট মেট্রোসিটি সিকিউরিটিজ লিমিটেডের বিনিয়োগকারীদের শেয়ার ও অর্থ ৩০ নভেম্বর ২০১৪ সময়ের মধ্যে পরিশোধের ব্যবস্থা গ্রহণ করে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জকে নির্দেশ দেয়া হয়।

সেই সঙ্গে এই ব্রোকারেজ হাউজের পর্ষদ পরিচালক ও তৎকালীন নির্বাহী পরিচালক শামীম আহমদকে ৫০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। সেইসঙ্গে তাকে পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট যে কোনো প্রতিষ্ঠানে সম্পৃক্ত হওয়ার ক্ষেত্রে আজীবন নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হয়। এছাড়াও তার সকল বিও হিসাব পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত অবরুদ্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

Leave A Reply