Deshprothikhon-adv

সিএমসি কামালের শেয়ার নিয়ে কারসাজির অভিযোগ!

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

CMC-KAMAL-আফজাল হোসেন লাভলু, শেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের কোম্পানি সিএমসি কামালের শেয়ার নিয়ে কারসাজি চলছে। স্বল্পমুলধনী কোম্পানি হওয়ার একটি চক্র নতুন করে এ কোম্পানির শেয়ার নিয়ে কারসাজিতে মেতে উঠছেন। পুঁজিবাজারে টানা দরপতন শুরু হলে সিএমসি কামালের শেয়ার টানা দরবৃদ্ধি ছিল। হঠাৎ করে কোন কারন ছাড়া এ কোম্পানির শেয়ারের দর বাড়া অস্বাভাবিক বলে মনে করছেন বাজার বিশ্লেষকরা।

এছাড়া দুর্বল মৌল ভিত্তি শেয়ার নিয়ে হরহামেশা কারসাজি চলছে। এ বিষয় নিয়ন্ত্রক সংস্থার খতিয়ে দেখা উচিত। বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত ৮ কার্যদিবসের মাত্র ২দিন শেয়ার টির দর কমেছে। এ সময়ে শেয়ারটির দর ১৪ টাকা থেকে বেড়ে হয়  ২২ টাকা ৩০ পয়সা পর্যন্ত হয়।  জানা গেছে, একটি চক্র ডিভিডেন্ড কেন্দ্র করে গুজব ছড়িয়ে শেয়ার দর বাড়িয়ে দিচ্ছে।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, টানা দরপতন বাজারে সিএমনি কামালের দর বাড়ার কারন কি। এ ব্যাপারে নিয়ন্ত্রত সংস্থার খতিয়ে দেখা উচিত। যে সকল বিনিয়োগকারীরা গুজবে কান দিয়ে বিনিয়োগ করছেন তারা ক্ষতিগ্রস্ত শিকার হবেন। তাই সুনির্দিষ্ট ঘোষণা না আসা পর্যন্ত গুজব এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

CMCKAMALএ ব্যাপারে জানতে চাইলে পুঁজিবাজার বিশ্লেষক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আবু আহমেদ বলেন, বাজারে এক প্রকার জুয়া খেলা (গ্যাম্বলিং) চলছে। তবে এবার ছোট বাজারে ছোট আকারে হচ্ছে। যে সব কোম্পানির দাম বাড়ার কথা, সে সব কোম্পানির দাম না বেড়ে নির্দিষ্ট কিছু কোম্পানির দাম বেড়েই চলছে।

কয়েক দিন ধরে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটছে। তিনি আরও বলেন, যে সব কোম্পানি সার্কিট ব্রেকারে পৌঁছেছে, তাদের দাম এত বেশি বাড়ার কোনো কারণ নেই। তবে এসব কোম্পানি নিয়ে বাজারে বিভিন্ন গুজব রয়েছে বলে জানান তিনি। আর কিছু কিছু বিনিয়োগকারী গুজব শুনে ফাঁদে পা দিচ্ছেন। এ ব্যাপারে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

এ ব্যাপারে বেসরকারি ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক মোহাম্মাদ মুসা প্রথম বলেন, লেনদেন বাড়ার বিষয়টি বাজারের জন্য ইতিবাচক। সামনে সরকারি বেশ কিছু কোম্পানির লভ্যাংশের ঘোষণা আসছে। এর ফলে ওই সব কোম্পানির লেনদেনের পরিমাণ বেড়েছে।

এটা সার্বিক লেনদেনের ওপর প্রভাব ফেলতে পারে। তবে হঠাত্ করে বিশেষ কিছু কোম্পানির দাম অতিরিক্ত বেড়ে যাওয়া বাজারের জন্য ক্ষতিকর বলে মনে করেন মোহাম্মাদ মুসা। কেননা একটি চক্র এসব কোম্পানি নিয়ে কারসাজির আশ্রয় নিতে পারে বলে মনে করেন তিনি।

ডিএসইর ওয়েবসাইট সূত্রে জানা যায়, আজ সিএমসি কামাল দর বৃদ্ধিতে শীর্ষে রয়েছে। সর্বশেষ প্রতিষ্ঠানটির প্রতিটি শেয়ার সর্বোচ্চ সীমা অর্থাত্ ২১.১০ টাকায় লেনদেন হয়।

Leave A Reply