Deshprothikhon-adv

নানা সমস্যা নিয়েই মোবাইল লেনদেনে শুরু ডিএসইতে

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

dseআমিনুল ইসলাম, শেয়ারবার্তা ২৪ ডটকম: নানা জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটে অবশেষে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) আগামী ৯ মার্চ থেকে মোবাইলের মাধ্যমে লেনদেন শুরু হবে। ঐদিন বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত মোবাইল ট্রেডিংয়ের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন বলে ডিএসই সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে লেনদেন (ট্রেডিং) পরিচালনার ব্যবহৃত সফটওয়্যারের সমস্যা নিয়েই বিনিয়োগকারীদের সুবিধার্থে মোবাইলে লেনদেন চালু করতে যাচ্ছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)।৯ মার্চ ‘ডিএসই মোবাইল’ নামে নতুন এ সুবিধা উদ্বোধন করা হবে। তবে ট্রেডিং সফটওয়্যারের সমস্যা সমাধান না করে নতুন সুবিধা বাস্তবায়নের সুফল নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে বিনিয়োগকারীদের মাঝে।

ডিএসইর দাবি সফটওয়্যারের সমস্যার জন্য মোবাইলে লেনদেন করতে বড় ধরনের সমস্যা দেখা দেবে না। প্রাথমিকভাবে মোবাইলে লেনদেন প্রক্রিয়ায় সমস্যা দেখা দিলে তা সমাধানে ডিএসই প্রস্তুত রয়েছে। সফটওয়্যারের সমস্যার কারণে লেনদেন বন্ধ থাকলে, মোবাইলের লেনদেন প্রক্রিয়াও বন্ধ থাকবে।

এদিকে মোটা অঙ্কের টাকা খরচ করে ডিএসই লেনদেন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য নতুন সফটওয়্যার আনলেও কারিগরি ত্রুটির কারণে তাতে মাঝে মধ্যে সমস্যা দেখা দিচ্ছে। ইতোমধ্যে সর্বশেষ চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারি যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে ডিএসইর আওতাভুক্ত ২৯ ব্রোকারেজ হাউজের লেনদেনে বিঘ্ন ঘটে।  এর আগেও বেশ কয়েক দফা ডিএসইতে দীর্ঘক্ষণ লেনদেন বন্ধ রাখার ঘটনা ঘটে। এতে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। তাই নতুন এ সেবা চালুর বিষয়ে বিনিয়োগকারীরা বেশ উদ্বিগ্ন।

এ বিষয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক স্বপন কুমার বালা বলেন, এর আগে ২৫ ফেব্রুয়ারি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের এই মোবাইল ট্রেডিং উদ্বোধন করার কথা ছিল। তিনি তা পরিবর্তন করেন। পরে অর্থমন্ত্রী আগামী ৯ মার্চ সময় দিয়েছেন। তবে সবধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হবে। মোবাইলে লেনদেন করতে হলে বিনিয়োগকারীকে আগে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

সম্প্রতি ডিএসইর পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বলা হয়, কারিগরি ত্রুটির কারণে সমস্যা দেখা দিচ্ছে। সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের সহয়তায় ডিএসই এ ধরনের সমস্যা সমাধান করতে সক্ষম হয়েছে। তবে কিছু কিছু সমস্যা সরাসরি সমাধানের ক্ষমতা ডিএসইর নেই।

নতুন সফটওয়্যার চালুর বিষয়ে অভিযোগ করে বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সভাপতি মিজানুর রশিদ চৌধুরী শেয়ারবার্তা টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘ট্রেডিং সফটওয়্যার নিয়েডিএসইর যে সমস্যা রয়েছে তা সমাধান না করেই নতুন সেবা চালু করা উচিত হয়নি। এর আগে নতুন সফটওয়্যার চালুর সময় ডিএসই বলেছিল, লেনদেন ব্যবস্থা দ্রুত ও সহজ হবে। কিন্তু সফটওয়্যার চালুর পর ডিএসইর কথা ও কাজে মিল পাওয়া যায়নি। সফটওয়্যার সমস্যার কারণে বেশ কয়েকবার লেনদেন বন্ধ হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এখন মোবাইল লেনদেন চালুর নামে বিনিয়োগ কারীদের সর্বস্বান্ত করার নতুন পাঁয়তারা চলছে।’

এ বিষয়ে যোগাযোগ করলে ডিএসইর স্বতন্ত্র পরিচালক রুহুল আমিন বলেন, ‘নতুন সেবা চালু করার পর কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে, এটা স্বাভাবিক। একেবারে শতভাগ অ্যারোর ফ্রি (ত্রুটিমুক্ত) হবে এটি কেউ আশা করতে পারে না। তবে আমরা আশা করি ‘ডিএসই মোবাইল’ নামে এ নতুন সেবা পুঁজিবাজারে গতি আনবে।’

সূত্রে জানা গেছে, ‘ডিএসই মোবাইল’ নামে নতুন যে লেনদেন প্রক্রিয়া ডিএসই চালু করতে যাচ্ছে তা ‘অটোমেটেড ট্রেডিং সিস্টেম রিনিউয়াল প্রজেক্ট’-এর অংশ। মোবাইলে লেনদেনের সফটওয়্যারটি দিচ্ছে ফ্রান্স-এর একটি প্রতিষ্ঠান। এ জন্য ডিএসইকে ফ্রান্সের ওই প্রতিষ্ঠানটিকে মোটা অঙ্কের টাকা দিতে হবে।

‘ডিএসই মোবাইল’ নামে সফটওয়্যাটি চালু করতে ডিএসইর ব্যয় হবে কোটি টাকা। এর মধ্যে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বাবদ ৪৪ লাখ টাকা খরচ করা হবে। এর মধ্যে ১৮ লাখ টাকায় খরচ করা হবে পত্রিকা মাধ্যমের জন্য। বাকি টাকার মধ্যে ভাড়া বাবদ ৩ লাখ, দুপুরের খাওয়া বাবদ ১৫ লাখ, ব্যানার-ফেস্টুনে ৪ লাখ এবং ভিডিওর জন্য ৪ লাখ টাকা খরচ করা হবে।

এর আগে লেনদেন প্রক্রিয়া আধুনিকায়ন করতে ‘অটোমেটেড ট্রেডিং সিস্টেম রিনিউয়াল প্রজেক্ট’ নামে একটি প্রকল্প গ্রহণ করে ডিএসই। এ প্রকল্পে তিন ধাপে ব্যয় ধরা হয় প্রায় ১০০ কোটি টাকা। প্রকল্পটির এখনো প্রথম ধাপের কাজ চলছে।

Leave A Reply