Deshprothikhon-adv

`যে সরিষা দিয়ে ভূত তাড়াবো সেই সরিষাতেই ভূত’

0
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0Share on LinkedIn0Share on Yummly0Share on StumbleUpon0Share on Reddit0Flattr the authorEmail this to someonePrint this page

একটি বিষয় আমি বেশ কিছু দিন থেকে ভাবছি কিন্তু এর কোন কুল কিনারা ভেবে পেলামনা। অনেক চেষ্টা করার পরও পারলামনা। অযুক্তিক অনেক কারন পেয়েছি কিন্তু প্রকৃত পক্ষে কোন যুক্তিক কারন খুজে পেলাম না ।

২০০৪ থেকে প্রায় ২০০৬ সাল পর্যন্ত প্রায় একচেটিয়া IPO আবেদন করেছি। এমন কোন কোম্পানি ছিল না যে আবেদন করিনি। ২০০৬ থেকে NRB গুলো আবেদন করতাম ২০০৮ সাল পর্যন্ত। ব্যবসা হিসেবে IPO ব্যবসা কিন্তু খারাপ না। ব্যবসার আরেকটি শব্দ Risk । যা এই ব্যবসার জন্য প্রযোজ্য নয়।

মুল কথায় আসা যাক, ২০০৪ থেকে ২০০৮ এই ৫-৬ বছরের অনেক নামি দামি কোম্পানি DSE তে listed হয়েছে। যার ভেতর অনেক Bank, Insurance, Finance & leasing কোম্পানি রয়েছে । সেই সময় listed হওয়া বেশির ভাগ কোম্পানি যে গুলো listed হয়েছিল তার বেশির ভাগ কোম্পানিই কোন ধরনের premium ছাড়াই অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল। তাও যে কয়টা হয়েছিল ১০০ টাকার শেয়ারে নেয়া হয়েছিল ৫০ টাকা premium.

সেই সময় IPO কোন শেয়ার মার্কেটে আসলে প্রথম দিকে খুব একটি টানাটানি হতোনা । আমারা যারা সেই সময় IPO করতাম তারা ভালো লাভের আশায় বসে থাকতাম কিন্তু একটি নিদিষ্ট রেট এর বাইরে তেমন দাম উঠানামা করত না । কিন্তু আমারা সেই সময় যারা IPO করতাম তাদের আবার বসে থাকারও কোন উপায় ছিল না কারন নুতন আরেকটি IPO টাকাতো জমা দিতে হবে, সেই জন্য অনেকটা বাধ্য হয়েই IPO পাওয়া শেয়ার গুলো sell করে দিতাম।

সেই সময় লক্ষ্য করতাম আমারা IPO আলারা শেয়ার যখন sell করে দিতাম তার ২-১ মাসের মধ্যেই ঐ শেয়ারটি একটি ভালো movement করত। এর একটি কারন ছিল, সেটা হল IPO আলারা যেন ভালো রেটে শেয়ার বিক্রি করতে না পারে। কারন এই IPO আলারা কোন ভাবেই এই শেয়ার মার্কেটের জন্য ভালো কিছু বয়ে আনেনা । এরা মুলত IPO করে । আর শেয়ার লটারিতে পেলে দ্বিগুণ দামে বিক্রি করে টাকা শেয়ার বাজার থেকে তুলে নেয় ।

দুঃখের বিষয় ২০১০ সালে মার্কেটের ভয়াভহ বিপর্যয় এর পর যেখানে শেয়ার এর Demand (চাহিদা) শূন্যের কোটায় সেই অবস্থায় একের পর এক নুতন IPO মার্কেটে আনার পেছেনে কি যুক্তি কাজ করছে তা আমার বোধগম্য হচ্ছেনা।

এর পেছেনেও রয়েছে বীভৎস এক চিত্র। যে সকল কোম্পানি গুলো বর্তমানে আসছে সে গুলো জন্য নেয়া হচ্ছে অতিরিক্ত premium । আরও বীভৎস চিত্র হচ্ছে এই শেয়ার গুলো মার্কেটে আসার পর প্রথম যে রেটে trade হয় তা থেকে ১০০% fluctuation করে ২-৩ দিনের মধ্যে। অবিশ্বাসও ………।।অবিশ্বাসও ………।। সত্যিই অবিশ্বাসও ………।।

আমার প্রশ্ন হল —– (এই IPO আলারা যদি কোন ভাবেই এই শেয়ার মার্কেটের জন্য ভালো কিছু বয়ে না আনে । এরা মুলত IPO করে । আর শেয়ার লটারিতে পেলে দ্বিগুণ দামে বিক্রি করে টাকা শেয়ার বাজার থেকে টাকা তুলে নেয় ) তাহলে এই IPO আলাদের টাকা দ্বিগুণ করার জন্য কারা এখন secondary মার্কেটে trade করছে।

কেন প্রথম ২-১ দিনে IPO আলাদের সেই শেয়ার sell করার ব্যবস্থা করে দেয়। যেখানে আমারা যখন IPO করতাম সেই সময় প্রথম ২-১ মাসেও IPO তে আসা নুতন শেয়ার এর movement তেমন থাকত না ।

তাহলে বর্তমান সময়ে আমারা কেন এই বিপরীত চিত্র দেখতে পাই । আমার বোধগম্যের বাইরে। আপনাদের যদি জানা থাকে দয়া করে জানাবেন । পরিশেষে একটি কথাই মনে পড়ল ” যে সরিষার দিয়ে ভূত তাড়াবো সেই সরিষাতেই ভূত ”

তানভীর আহম্মেদ, বিনিয়োগকারী

Leave A Reply